চট্টগ্রাম, সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২ , ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

স্ত্রীর মর্যাদার দাবিতে বাড়িতে হাজির তরুণী, খবর পেয়ে পালাল প্রেমিক!

প্রকাশ: ৭ এপ্রিল, ২০২২ ৬:২৯ : পূর্বাহ্ণ


নয় মাস আগে রেজিস্ট্রি করে বিয়ে করার পরও স্বামীর ঘরে ঠাঁই হয়নি স্ত্রীর। শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে বাড়ির বউ বলে মানতে চায় না। তাই স্ত্রীর মর্যাদা চেয়ে প্রেমিকের বাড়ির সামনে অবস্থান নিলেন তরুণী।

এ ঘটনা ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মালদহের মানিকচক থানার মথুরাপুরের কাহারপাড়া এলাকায়। খবর পেয়ে মানিকচক থানার পুলিশ এসে ওই নারীকে নিয়ে যায়। খবর আনন্দবাজারের।

ওই নারীর নাম জয়ন্তী সরকার। তিনি বলেন, আমি ডিভোর্সি জানার পরও পার্থপ্রতিম রায় আমাকে বিয়ে করেন। রেজিস্ট্রি করে বিয়ের পরও নানা বাহানায় আমাকে বাড়িতে নিতে চায়নি পার্থ। বারবার শ্বশুরবাড়ি যেতে চাইলেও আমাকে অনেকটা জোর করে বাপের বাড়িতেই থাকতে বাধ্য করে পার্থ। পরে বুধবার (৬ এপ্রিল) সকালে পার্থের বাড়ির সামনে অবস্থান নেন জয়ন্তী।
জয়ন্তী বলেন, আমি স্বামী পরিত্যক্তা। তারপর পার্থ আমার জীবনে আসে। আমাকে ভালবাসে বলে জানায়। আমি বলেছিলাম, তোমার পরিবার মানবে না। তারপরও ভালবাসার কথা বলে সিঁথিতে সিঁদুর দেয়। পার্থ বলেছিল, ভালবাসার জন্য জীবন দিয়ে দেব। এখন পার্থের বাড়ির কেউ মানছে না। পার্থের বাবা বলছে, ছেলে ঠিক করেছে! ও পালিয়েছে।

পার্থের পরিবারের সদস্যরা জানান, ছেলে বাড়িতে নেই। পার্থকে তার পরিবারের সদস্যরা ‘লুকিয়ে’ রেখেছেন বলে দাবি করেন জয়ন্তী। কেন আমি স্বামীর অধিকার থেকে বঞ্চিত হব! স্ত্রীর অধিকার না দিলে বাড়ির সামনে থেকে সরবেন না বলেও জানান তিনি।

এদিকে পার্থের দিদি জানিয়েছেন, মিথ্যা কথা বলছেন জয়ন্তী। তাঁর ভাই বিয়ে করেননি। তাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। এছাড়া জয়ন্তীর বাড়ির লোকজন তাদের বাড়িতে ঢুকে পরিবারের লোকজনকে মারধর করেছে এবং আসবাবপত্রও ভাঙচুর করেছে।

Print Friendly and PDF