চট্টগ্রাম, সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২ , ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মন্দিরে প্রসাদের নামে দেয়া জুস খেয়ে নারী-শিশুসহ ২৫ জন অজ্ঞান

প্রকাশ: ১৪ এপ্রিল, ২০২২ ৫:৪৪ : পূর্বাহ্ণ

মন্দিরের নারী-শিশুসহ আরও অনেককেই ‘প্রসাদ’-এর নাম করে ফলের রস খাওয়ান এক ব্যক্তি। তার সেই রস খেয়ে ২৫ জন জ্ঞান হারিয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। পুলিশ জানিয়েছে, ওই ফলের রসে চেতনানাশক কিছু মেশানো ছিল।

পুলিশ আরও জানিয়েছে, বুদো মাতা মন্দিরে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটেছে। মন্দিরটি ভারতের হারিয়ানা রাজ্যের গুরুগ্রাম জেলার ফররুখনগর এলাকায় অবস্থিত। বুধবার এ খবর দিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সিয়াসত ডেইলি।

ফররুখনগর থানার পুলিশ কর্মকর্তা সুনীল বেনিওয়াল বলেছেন, ঘটনার পর মঙ্গলবার রাতেই ভুক্তভোগীদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থা গুরুতর না হওয়ায় বুধবার সকালেই তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। সেখানে কোনো ডাকাতি বা চুরির খবর পাওয়া যায়নি। এই পানীয় যে পরিবেশন করেছে তাকে শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।

তিনি আরও জানান, ভারতীয় দণ্ডবিধির ধারা ৩২৮ (বিষের মাধ্যমে আঘাত করা), ৩৩৬ (মানব জীবনকে বিপন্ন করা) এবং ১২০-বি (অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র)-এর অধীনে একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি মন্দিরের চত্বরে ‘প্রসাদ’ বলে দাবি করে ফলের রস পরিবেশন করেন।

মামলার অভিযোগকারীদের একজন দিল্লির বাসিন্দা সুশীল কুমার পরিবারসহ মন্দিরে গিয়েছিলেন। তিনি বলেন, আমরা গাড়ি থেকে নামতে না নামতেই একজন লোক এসে গ্লাসে ফলের রস দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন যে এটি ‘প্রসাদ’ এবং সবাইকে তিনি তা পরিবেশন করছেন।

সুশীল আরও জানান, আমার স্ত্রী ও ভাগনে ওই রস খাওয়ার পরপরই অজ্ঞান হয়ে যায়। সে সময় মন্দির চত্বর থেকে কান্নার আওয়াজ ভেসে আসছিল। আরও অনেককেই প্রসাদের নাম করে ওই জুস খাওয়ানো হয়েছিল।

Print Friendly and PDF