চট্টগ্রাম, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২২ , ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক ও নৌকার প্রতিক নিয়ে, দুই দুইবার সফল চেয়ারম্যান বাবুল এর বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে মানববন্ধন

প্রকাশ: ৩০ মার্চ, ২০২২ ৫:৪৭ : অপরাহ্ণ

রিপোর্ট: মোঃ ইকবাল হাসান কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি চ্যানেল কর্ণফুলী।

কক্সবাজারের অন্তর্গত, পেকুয়ায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডির) উপসহকারী প্রকৌশলী আবদুল আলিমের অপসারণ চান ক্ষমতাসীন দল আ’লীগসহ রাজাখালী ইউনিয়নবাসী। ওই কর্মকর্তাকে ঘুষখোর ও দুর্ণীতিবাজ আখ্যায়িত করা হয়েছে। তাকে চাকুরী থেকে অপসারণ দাবীতে উত্তাল হচ্ছে রাজাখালীসহ সমগ্র পেকুয়া উপজেলায়।

রাজাখালী ইউপির চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম সিকদার বাবুলের উপর হামলা ও পরবর্তীতে তার বিরুদ্ধে মামলা রুজু হওয়ার প্রতিবাদে রাজাখালীতে আবারো মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়েছে। ৩০ মার্চ বুধবার বিকেল ৫ টার দিকে রাজাখালী ইউনিয়নের সবুজবাজারে মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়। ক্ষমতাসীন দল আ’লীগসহ সর্বস্তরের জনগনের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত ওই মানববন্ধন কর্মসূচীতে হাজার হাজার মানুষ অংশ নিয়েছে। বাবুল চেয়ারম্যানের পক্ষে সংহতি জানিয়ে তার সমর্থনে বিপুল জনগন মানববন্ধনে উপস্থিত থেকে ব্যাপক প্রতিবাদ জানান।

মানববন্ধন থেকে সংক্ষিপ্ত প্রতিবাদ সভা অনু্িষ্ঠত হয়। এ সময় বক্তব্য দেন রাজাখালী ইউনিয়ন আ’লীগ সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান, বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম বিএসসি, ইউনিয়ন আ’লীগ সাধারন সম্পাদক আবুল কাসেম আজাদ, সহসভাপতি হাজী আবু তাহের মাতবর, ইউনিয়ন আ’লীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক মাষ্টার নুর মোহাম্মদ, আ’লীগ নেতা এতারাফ সিকদার, বদরুল কামাল, উপজেলা যুবলীগের যুগ্নসম্পাদক আকতার হোছাইন,উপজেলা মহিলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক ও স্থানীয় ইউপির নারী সদস্য ছেনুয়ারা বেগম, ইউপি সদস্য শহীদ মো: সাইফুল্লাহ, ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি রিয়াজ খান রাজু, ছাত্রলীগ রাজাখালীর সভাপতি ইমরান, মৎস্যজীবিলীগ নেতা রেজাউল করিম প্রমুখ।

এ সময় বক্তব্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও ইউনিয়ন আ’লীগ সভাপতি নুরুল ইসলাম বিএসসি বলেন, চেয়ারম্যানের উপর হামলা অত্যন্ত ন্যাক্কার জনক। আলিম একজন ঘুষখোর ও দুর্ণীতিবাজ কর্মকর্তা। এ রাজাখালীতে তার বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ আছে। আমরা এ পরিস্থিতির জন্য তাকে দায়ী করছি। অবিলম্বে তাকে অপসারণ করতে হবে। বাবুল চেয়ারম্যানকে মিথ্যা মামলা থেকে অব্যাহতি দিতে হবে। সাধারন সম্পাদক আবুল কাসেম আজাদ বলেন, আমরা রাস্তায় নেমেছি ওই প্রকৌশলীকে অপসারণ না করা পর্যন্ত রাস্তায় থাকবো আ’লীগ। সাবেক সাধারন সম্পাদক মাষ্টার নুর মোহাম্মদ বলেন, আলিম একজন ঘুষখোর। বঙ্গবন্ধুর বাংলায় ঘুষখোরের ঠাই নেই। ইউপি সদস্য শহীদ মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ বলেন, আমরা আন্দোলন মাত্র শুরু করেছি। রাজপথে থাকবো। আলিমের বিচার চাই। ইউপি সদস্য ও মহিলা আ’লীগ নেত্রী ছেনুয়ারা মেম্বার বলেন, প্রয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর কাছে যাবো। বাবুল চেয়ারম্যান হয়েছে বঙ্গবন্ধু হোসেন শহীদ সোহাওয়ার্দী শেরে বাংলা ফজলুল হক ও ভাসানীর প্রতীক নৌকা নিয়ে। তাকে ঘুসি মেরেছে। আর মামলা হয়েছে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে। আমরা ঘরে বসে থাকতে পারি না।

Print Friendly and PDF