চট্টগ্রাম, রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২ , ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

জমি সংক্রান্ত বিরোধে ২১টি আম গাছ কর্তন

প্রকাশ: ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ৯:২৬ : পূর্বাহ্ণ

নওগাঁ প্রতিনিধিঃ নওগাঁর মান্দা-মহাদেবপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা সফাপুর ইউনিয়নের বিনোদপুর গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে একটি বাগানের বিভিন্ন প্রজাতির ২১টি আম গাছ কাটা এবং ওই গাছগুলোর মধ্য থেকে বেশকিছু গাছ চুরি করে নিয়ে যাওয়ার ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে দেওয়ান একরামুল হক বাচ্চু নামে এক বাগান মালিক ১২ জনের নাম উল্লেখ করে মহাদেবপুর থানায় মামলা দায়ের করেছেন বলে জানা গেছে।


স্থানীয়রা জানান, মান্দার গনেশপুর গ্রামের মৃত দেওয়ান আবুল কাশেমের  ছেলে দেওয়ান একরামুল হক বাচ্চু বিনোদপুর মৌজার সাবেক ১৪৮৩ এবং অন্যান্য দাগে কবলা সূত্রেপ্রাপ্ত  ৬ বিঘা  জমিতে বিভিন্ন প্রজাতির ফলজ আমগাছ  রোপণ করেন। পরবর্তীতে সে জমিটিতে রোপিত গাছগুলো গণেশপুর গ্রামের সামসুল ইসলাম নামে একজনের কাছে কয়েক বছরের জন্য লিজ দেন।  সে মোতাবেক গত কয়েক বছর যাবৎ তিনিই বাগানটি পরিচর্যা করছিলেন। জমিটি নিয়ে মান্দার গনেশপুর গ্রামের মৃত দেওয়ান আবুল কাশেমের  ছেলে দেওয়ান একরামুল হক বাচ্চু এবং পার্শ্ববর্তী মহাদেবপুর উপজেলার বিনোদপুর গ্রামের মৃত মছির উদ্দিন প্রামানিকের ছেলে কাসেম আলী প্রামানিক গংদের সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ বিরোধ চলে আসছিলো। এরই জের ধরে গত বুধবার রাত ১১টার দিকে ওই বিবাদমান জমির ২১ টি বড় আম গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। এতে বাগান মালিকের প্রায় ৩ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে বলে জানিয়েছেন তারা।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রতিপক্ষের কাসেম আলী প্রামানিকের ছেলে হায়েদ আলী বলেন, গাছ কাটার সঙ্গে আমাদের কোনো সম্পৃক্ততা নেই। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আমাদেরকে ফাঁসাতে আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে।
মহাদেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজম উদ্দিন মাহমুদ বলেন, এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে গনেশপুর গ্রামের মৃত দেওয়ান আবুল কাশেমের  ছেলে বাগান মালিক দেওয়ান একরামুল হক বাচ্চু প্রফেসর বাদী হয়ে বিনোদপুর গ্রামের মৃত মছির উদ্দিন প্রামানিকের ছেলে কাসেম আলী প্রামানিক (৭০), কাসেম আলী প্রামানিকের ছেলে হাসেন আলী (৪২), হায়েদ আলী (৩৮), সায়েদ হোসেন (৩৪), মামুন হোসেন (৩০), হাসেন আলীর স্ত্রী রেনুকা বেগম (৩৫), হায়েদ আলীর স্ত্রী সাজে বেগম (৩৫), সায়েম হোসেনের স্ত্রী আমেনা বেগম (৩০), কাসেম আলী প্রামানিকের স্ত্রী মোমেনা বেগম (৬০), মামুন হোসেনের স্ত্রী  মেঘনা বেগম (২৮), মৃত মছির উদ্দিন প্রামানিকের ছেলে জান বক্স (৬০) এবং মালা বক্স (৫৫) সহ আরো ৫/৭ জন অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছেন। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

@মাহবুবুজ্জামান সেতু।

Print Friendly and PDF