চট্টগ্রাম, রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২ , ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সরকারি চাকরি পাওয়ায় স্ত্রীর হাত কেটে নেয়া সেই স্বামী গ্রেপ্তার

প্রকাশ: ৮ জুন, ২০২২ ৬:০৭ : পূর্বাহ্ণ

সরকারি হাসপাতালে নার্স পদে স্থায়ী চাকরি পেয়েছে স্ত্রী রেণু খাতুন, তাই পরকীয়ায় জড়িয়ে চলে যেতে পারে অন্যের হাত ধরে। এমন আশঙ্কায় স্ত্রীর হাত কেটে দিয়েছিল স্বামী শরিফুল শেখ।

ঘটনার পর থেকেই পলাতক ছিলেন শরিফুল শেখ ও তার পরিবারের সদস্যরা। তবে শেষ রক্ষা হল না। ঘটনার তিনদিনের মধ্যে মঙ্গলবার (৭ জুন) ভারতের পূর্ব বর্ধমান-মুর্শিদাবাদ সীমানা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেছে কেতুগ্রাম থানার পুলিশ।

পুলিশের বরাতে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস জানায়, মঙ্গলবার বিকেলে পূর্ব বর্ধমান এবং মুর্শিদাবাদ জেলার সীমানায় হলদি গ্রামের কাছ থেকে শরিফুল শেখকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এদিকে মঙ্গলবার সকালে তার বাবা মাকে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ।

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পারে, রেণু খাতুনের হাত কাটার জন্য দুজনকে সুপারি দিয়েছিল শরিফুল শেখ। তারা তার বন্ধু ছিল না। শুধু স্ত্রীর হাত কাটার জন্য তাদের ভাড়া করে আনা হয়েছিল। তাদেরও খোঁজও চলছে বলে জানায় পুলিশ।

পুলিশ আরও জানায়, রেণুকে খুন করার চেষ্টা করেনি তারা। শুধু হাত কাটতে চেয়েছিল। যাতে তিনি সরকারি চাকরিটা না করতে পারেন। এজন্যেই ঘুমন্ত অবস্থায় রেণুর মুখে বালিশ চাপা দিয়ে এ নৃশংসতা চালায় তারা। কাটা হাত বাড়িতে রেখেই কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে রেণুকে নিয়ে যাওয়া হয় যাতে চিকিৎসকরা হাত জোড়া না লাগাতে পারেন! এমনকি চিকিৎসায় ব্যাঘাত ঘটাতে রেণু খাতুনের প্রয়োজনীয় সমস্ত নথিও সরিয়ে ফেলার অভিযোগ উঠে।

এই মনোভাব যে যুবকের তার কঠোর শাস্তি চাইছেন অনেকেই।

Print Friendly and PDF