চট্টগ্রাম, রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২ , ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভিডিও কলে বউকে আগুনের দৃশ্য দেখাচ্ছিলেন শাহদাত, এ সময় বিকট শব্দে বিস্ফোরণ, অতঃপর…

প্রকাশ: ৬ জুন, ২০২২ ৫:৫৪ : পূর্বাহ্ণ

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে বিস্ফোরণের ঘটনায় নিহত ফেনীর ফুলগাজীর শাহদাত উল্যাহ মজুমদারের বাড়ীতে চলছে শোকের মাতম।

পরিবারের একমাত্র কর্মক্ষম ছেলের মৃত্যুতে বাকরুদ্ধ বাবা-মা। নিষ্পলক চোখে বাবার প্রতীক্ষায় আড়াই মাসের সন্তানটি। পথ চেয়ে বিলাপে কাতরাচ্ছে স্ত্রী আয়েশা ও স্বজনরা। এক পলক দেখতে সারি সারিতে বাড়ির পথে প্রতিবেশীরা। এমনই চিত্র এখন চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের ট্রাজেডিতে প্রাণ যাওয়া ফেনীর ফুলগাজী উপজেলার আনন্দপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ আনন্দপুর মজুমদার বাড়িতে।

ফেনী সরকারী কলেজে স্নাতক পাশ করেই চাকুরীতে যোগ দেন বিএম কনটেইনার ডিপোর শিফট ইনচার্জ হিসেবে। নিহত শাহদাত ফুলগাজীর আনন্দপুরের আমিন উল্যাহ মজুমদারের বড় ছেলে।

পরিবার ও স্বজনরা জানান, বৃহস্পতিবারে ছুটিতে বাড়িতে এসে শনিবার সকালে তিনি কাজে যোগদান করেন। ডিউটি শেষ করে বাসায় যান। অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ডিপোতে আসেন ও পরিবারের সাথে মোবাইলে কথা বলা অবস্থায় বিস্ফোরণের পর থেকেই যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন। রবিবার (৫ জুন) দুপুরে স্বজনরা জানতে পারেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মরদেহ চিহ্নিত হয়েছে। খবর পেয়ে স্বজনরা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। মরদেহ নিশ্চিত করে আনার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়েছে ছোট ভাই ও স্বজনরা।

এদিকে গ্রামের বাড়িতে লাশ দাফনের প্রক্রিয়া চলছে। তিন ভাই বোনের মাঝে শাহদাত মেঝ। বছর দুয়েক পূর্বে শাহদাত বিয়ে করেন। তার আড়াই মাসের কন্যা সন্তান রয়েছে।

নিহতের স্বজন ও এলাকাবাসীরা বলেন, শাহদাত ভালো ছেলে ছিল। কারো সাথে কোন দ্বন্দ্ব ছিল না। সে এবার বাড়িতে এসে এলাকার কয়েকজন বেকার যুবককে তাদের কনটেইনার ডিপোতে চাকরীর সুযোগ করে দিবে বলেছিল। কিন্তু তা আর হয়ে উঠলো না।

নিহতের মা শাহানা আক্তার বলেন, শাহদাত আমার সাথে ও ছেলের বৌয়ের সাথে শনিবার রাতে কথা বলেন। ওই সময় ভিডিওতে সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে আগুন লাগার দৃশ্য দেখায়। এ সময় বিকট শব্দে কনটেইনার ডিপোতে বিস্ফোরণ হলে তার সাথে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। অনেক যোগাযোগ করে আর খোঁজ পাইনি। রোববার দুপুর বেলায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে খবর পাই শাহদাতের মরদেহ হাসপাতাল মর্গে রয়েছে। খবর পেয়ে আমার ছোট ছেলে ও আত্মীয় স্বজন তাকে খুঁজতে হাসপাতালে গিয়ে পান এবং শাহদাতের মরদেহ শনাক্ত করেন।

আনন্দপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন মজুমদার বলেন, চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে বিস্ফোরণের ঘটনায় শাহদাত উল্যাহ মজুমদার নিহতের খবর পেয়ে এসেছি। সে ভালো ছেলে ছিল। একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি শাহাদাতের মৃত্যুতে পরিবারের খুব ক্ষতি হলও। সে ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের সহযোগিতা করছিল এ সময় এ ঘটনা ঘটে।

Print Friendly and PDF