চট্টগ্রাম, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২২ , ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বন্দী যুবককে হোয়াটসঅ্যাপে অশালীন বার্তা পাঠিয়ে গ্রেপ্তার নারী কারাপ্রধান, ৮ মাসের জেল!

প্রকাশ: ৩০ এপ্রিল, ২০২২ ৫:৩৮ : পূর্বাহ্ণ

কারাবন্দী যুবকের জন্য মোবাইল ফোনের ব্যবস্থা করে দিয়েছিলেন খোদ কারাপ্রধান। এরপরই হোয়াটসঅ্যাপে দু’জনের মধ্যে হত মেসেজ চালাচালি। সেখানে যুবককে ‘অশালীন’ প্রস্তাব দেওয়ার অপরাধে আট মাসের জন্য জেলে যেতে হল ওই নারী কারাপ্রধানকে! অভিযোগ, আসামিকে আপত্তিকর প্রস্তাব দেওয়ার পাশাপাশি তাঁকে ‘বেব’ বলে সম্বোধন করেছিলেন ৪৭ বছর বয়সী কারাপ্রধান ভিক্টোরিয়া লেথওয়েট। শুধু তাই নয় ফের জেল হয়েছে আসামি ওই যুবক জেমস চালমার্সেরও। ভার্জিনিয়া নর্থামশায়ারের এইচএমপি জেলে এ ঘটনা ঘটে।

গত বছরের মে মাসে নর্থামশায়ারের ওই জেল থেকে উদ্ধার হয় দু’টি মোবাইল ফোন। জেলের মধ্যে কীভাবে এল মোবাইল ফোন? ফোনের হোয়াটসঅ্যাপ খুলতেই চোখ কপালে ওঠে তদন্তকারীদের। নম্বর দেখেই চিহ্নিত করা হয় করাপ্রধানকে। এর পর গ্রেপ্তার হন ভিক্টোরিয়া। দু’টি ফোনের হোয়াটসঅ্যাপ কথোপকথন থেকে উঠে আসে বন্দী আর কারাপ্রধানের সম্পর্কের কথা। যে সম্পর্ককে ‘অনৈতিক’ বলে বৃহস্পতিবার রায় দান করেন নর্থামশায়ার ক্রাউন কোর্টের বিচারক।

হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজে ভিক্টোরিয়া আসামি জেমস্‌কে লেখেন, ‘তুমি কথা না বললে আমার ভয় করে। মনে হয় এই বুঝি আমাকে ঠকিয়ে চলে গেলে তুমি।’ এক জায়গায় আসামিকে ‘বেব’ বলেও সম্বোধন করেন তিনি। আদালতে সরকার পক্ষের আইনজীবী অভিযোগ করেন, কারাপ্রধান আসামির সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন। তবে ভিক্টোরিয়ার আইনজীবী বিরোধিতা করে জানান, এমন কিছুই হয়নি। তিনি জানান, তাঁর মক্কেল নিজের কাজের জন্য লজ্জিত। তিনি মুহূর্তের দুর্বলতায় স্বামী-সন্তান-সংসার— সব নষ্ট করে ফেলেছেন। তাঁকে মাফ করা হোক।

Print Friendly and PDF