চট্টগ্রাম, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২২ , ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

রমজান মাসে ফের কুরআন পোড়ানোর ঘোষণা, বিক্ষোভে উত্তাল সুইডেন

প্রকাশ: ১৬ এপ্রিল, ২০২২ ৭:৪৯ : পূর্বাহ্ণ

রমজান মাসে ফের কুরআন পোড়ানোর ঘোষণা, বিক্ষোভে উত্তাল সুইডেন

কুরআন পোড়ানোকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে সুইডেন। এ ঘটনায় দেশটির চারজন পুলিশ সদস্যসহ পাঁচজন আহত হয়েছে। সুইডেনের একটি চরম ডানপন্থী গ্রুপ কুরআন পোড়ানোর ঘোষণা দেয়। এর প্রতিবাদে শুক্রবার (১৫ এপ্রিল) মধ্যাঞ্চলীয় ওরেব্রো শহরে বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেই ওই ব্যক্তিরা আহত হয়। খবর আল জাজিরার।

পুলিশ জানিয়েছে, বিক্ষোভকারীরা পুলিশের চারটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। এছাড়া অন্তত চারজন অফিসার এবং একজন বেসামরিক ব্যক্তি আহত হয়েছে। বিক্ষোভকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে পাথর ছোড়ে এবং পুলিশকে ঘিরে ধরে হামলা চালিয়ে দাঙ্গার ফেন্স ছিঁড়ে ফেলে।

ড্যানিশ-সুইডিশ রাসমুস পালুদানের নেতৃত্বে অভিবাসন বিরোধী এবং ইসলাম বিরোধী চরম-ডানপন্থী স্ট্রাম কুরস (হার্ড লাইন) আন্দোলন কুরআন পোড়ানোর ঘোষণা দেয়ার পর এই বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। গ্রুপটি তাদের সমাবেশ করার জন্য পুলিশের অনুমতিও পেয়েছিল। কিন্তু পরে পরিস্থিতি শান্ত করতে তা বাতিল করে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, এরপর শুক্রবার (১৫ এপ্রিল) সন্ধ্যায় অধিকাংশ বিক্ষোভকারী বাড়ি ফিরে গেছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার সুইডেনের পূর্ব উপকূলীয় শহর লিনকোপিংয়ে একটি দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়। ওই বিক্ষোভে কুরআন পোড়ানো হবে বলে ঘোষণা দেয়া হয়েছিল। বিক্ষোভ থেকে দু’জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সুইডেনের জাতীয় পুলিশ প্রধান অ্যান্ডার্স থর্নবার্গ বলেছেন, আমরা একটি গণতান্ত্রিক সমাজে বাস করি এবং পুলিশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলোর মধ্যে একটি হলো এটি নিশ্চিত করা যে জনগণ তাদের সাংবিধানিকভাবে সুরক্ষিত অধিকার ব্যবহার করতে এবং তাদের মতামত প্রকাশ করতে পারে।

প্রসঙ্গত, চরম-ডানপন্থী নেতা পালুদান সাম্প্রতিক বছরগুলোতে নিয়মিতই আলোচনার জন্ম দিয়ে আসছেন। ২০২০ সালের নভেম্বরে তাকে ফ্রান্সে গ্রেপ্তার করা হয় এবং সেখান থেকে বের করে দেয়া হয়। এর কিছু সময় পর বেলজিয়ামে আরও পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তারা ব্রাসেলসে কুরআন পুড়িয়ে ‘ঘৃণা ছড়াতে’ চাইছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

Print Friendly and PDF