চট্টগ্রাম, বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২ , ২রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

লিভারপুলের জয়ে শেষ রাউন্ডেই নিষ্পত্তি হবে ইপিএল শিরোপার

প্রকাশ: ১৮ মে, ২০২২ ৪:৪৩ : পূর্বাহ্ণ

শেষ রাউন্ডেই নিষ্পত্তি হবে শিরোপা। পিছিয়ে পড়েও সাউদাম্পটনকে হারিয়েছে লিভারপুল। দুই অর্ধের দুই গোলে জয় তুলে নেয়ার পাশাপাশি লিগের শিরোপা লড়াই টেনে নিল শেষ রাউন্ডে।

মঙ্গলবার (১৭ মে) রাতে প্রতিপক্ষের মাঠে প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচটি ২-১ গোলে জিতেছে য়্যুর্গেন ক্লপের দল। ন্যাথান রেডমন্ডের গোলে পিছিয়ে পড়ার খানিক পরই সমতা টানেন তাকুমি মিনামিনো। আর দ্বিতীয়ার্ধে জয়সূচক গোলটি করেন জোয়েল মাতিপ। এ জয়ে ৩৭ ম্যাচে ২৮ জয় ও ৬ ড্রয়ে ৯০ পয়েন্ট শীর্ষে সিটি। ১ পয়েন্ট কম নিয়ে দুইয়ে লিভারপুল।

হেরে গেলেই সব শেষ ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে দলে পরিবর্তন আনেন লিভারপুল কোচ। অভিজ্ঞ ডিফেন্ডার ভার্জিল ফন ডাইক ও তারকা ফরোয়ার্ড মোহামেদ সালাহ চোটাক্রান্ত, আরেক ফরোয়ার্ড সাদিও মানে বিশ্রামে-সব মিলিয়ে চেলসির বিপক্ষে এফএ কাপ জয়ের ম্যাচের শুরুর একাদশে ৯টি বদল এনে খেলতে নামে সফরকারীরা। তাতে দলটির আক্রমণের ধার না কমলেও শুরুতে জেগেছিল শঙ্কা। তবে দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে ম্যানচেস্টার সিটির ওপর চাপ ধরে রাখল লিভারপুল।

সাউদাম্পটনের বিপক্ষে আসরে দুইবারের দেখায় একবারও জিততে পারেনি ম্যানচেস্টার সিটি, দুই ড্রয়ে হারাতে হয় ৪ পয়েন্ট। ঠিক একইভাবে দলটি এবার যদি লিভারপুলকেও রুখে দিতে পারে!-কদিন আগে এই প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছিলেন সিটি কোচ পেপ গুয়ার্দিওলা।

ম্যাচের শুরুতেই তার স্বপ্ন সত্যি হওয়ার উপলক্ষ মেলে। ত্রয়োদশ মিনিটে দারুণ এক পাল্টা আক্রমণে এগিয়ে যায় সাউদাম্পটন। সতীর্থের পাস ধরে বাঁ দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে কয়েকজনের বাধা এড়িয়ে কিছুটা বাঁকানো উঁচু শটে দূরের পোস্ট দিয়ে গোলটি করেন রেডমন্ড। ১৪ মিনিটের বেশি সে উল্লাস বেশিক্ষণ থাকে স্বাগতিক দর্শকদের মুখে।

২৭তম মিনিটে দারুণ নৈপুণ্যে স্কোরলাইনে সমতা টানেন মিনামিনো। ডি-বক্সে জটার ছোট পাস পেয়ে জোরাল শটে কাছের পোস্ট দিয়ে গোলরক্ষক পরাস্ত করেন জাপানের এই উইঙ্গার। দলের জন্য গোলটি মহামূল্যবান হলেও উদযাপন করেননি গত মৌসুমে কয়েক মাস ধারে সাউদাম্পটন খেলা মিনামিনো।

দ্বিতীয়ার্ধের চাপ ধরে রেখে খেলতে থাকে লিভারপুল। ৪৮তম মিনিটে এগিয়েও যেতে পারতো তারা। তবে দিয়াগো জটার নিচু শট পোস্ট ঘেঁষে বেরিয়ে যায়। অবশেষে ৬৭তম মিনিটে এগিয়ে যায় লিভারপুল। কসতাস সিমিকাসের কর্নারে লাফিয়ে নেয়া হেডে গোলটি করেন মাতিপ। শেষ দিকে কিছুটা সময় লিভারপুলের রক্ষণে চাপ তৈরি করে পয়েন্ট টেবিলের ১৫ নম্বর দলটি। উল্লেখযোগ্য কোনো সুযোগ অবশ্য তৈরি করতে পারেনি তারা।

শিরোপা লড়াইয়ের সব উত্তেজনা এবার শেষের অপেক্ষায়। শেষ ম্যাচে লিভারপুলের শুধু জিতলেই হবে না প্রার্থনা করতে হবে ম্যানচেস্টার সিটির হারের।

আগামী রোববার শেষ রাউন্ডে একই সময়ে আলাদা ম্যাচে নামবে দুদল। লিভারপুল ঘরের মাঠে খেলবে উলভারহ্যাম্পটন ওয়ানডারার্সের বিপক্ষে। আর পেপ গার্দিওয়ালার দলকে খেলতে হবে অ্যাস্টন ভিলার মাঠে। যে দলই চ্যাম্পিয়ন হোক, উৎসব হবে হোম ভেন্যুতে।

Print Friendly and PDF