চট্টগ্রাম, মঙ্গলবার, ৪ অক্টোবর ২০২২ , ১৯শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে এশিয়ার সর্ববৃহৎ ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত

প্রকাশ: ৩ মে, ২০২২ ৯:০৪ : পূর্বাহ্ণ

মুসলিম উম্মার সুখ-শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে দিনাজপুর ঐতিহাসিক গোর-এ শহীদ বড় ময়দানে দেশের এবং এশিয়ার সর্ববৃহৎ ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। এক মাস সিয়াম সাধনার পর উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে বিশাল এই জামাতে দিনাজপুর ছাড়াও দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে মুসল্লিরা আসেন নামাজ আদায় করতে।

এর আগে সকাল ৭টা থেকে এই ঈদগাহে মুসল্লিরা আসতে থাকেন। মোট ১৬০টি কাতারে মুসল্লিরা নামাজ আদায় করেন। এখানে ইমামতি করেন ইমাম মাওলানা সামশুল হক কাশেমী। এ ছাড়া এখানে নামাজ আদায় করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদ এর হুইপ ইকবালুর রহিম, সুপ্রিম কোটের বিচারপতি ইনায়েতুর রহিম, জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকী, পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন, পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলমসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা।

পুরো ঈদগাহজুড়ে চার স্তরের নিরাপত্তাব্যবস্থায় পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব, আনসার ও স্বেচ্ছাসেবকরা দায়িত্ব পালন করেন। মোট ১৯টি গেট মেটাল ডিটেকটর দিয়ে শুধু জায়নামাজ ও ছাতা নিয়ে প্রবেশ করেন মুসল্লিরা। ছিল পর্যবেক্ষণ টাওয়ার। ৩০টি সিসিটিভি ক্যামেরার মাধ্যমে মনিটরিং করা হয়। ১১০টি মাইক বসানো হয়।

এ ছাড়া ইমাম সাহেবকে সহযোগিতা করার জন্য বিভিন্ন মসজিদ এবং মাদ্রাসা থেকে ২ শতাধিক মুকাব্বির নিয়োজিত ছিল। ছিল স্বাস্থ্য ক্যাম্প। ওজু করতে যেন অসুবিধা না হয়, এ জন্য ২৫০টি ওজুখানা এবং পানি খাবার ব্যবস্থা রাখা ছিল।

দিনাজপুরসহ বিভিন্ন অঞ্চল থেকে এখানে নামাজ আদায়ের জন্য মুসল্লিরা আসেন। মুসল্লিদের জন্য ছিল যানবাহন পার্কিং,পানি ও ওজুর ব্যবস্থা। বসানো হয় ক্লোস সার্কিট ক্যামেরা ও পর্যবেক্ষণ টাওয়ার। শান্তিপূর্ণভাবে নামাজ আদায় করতে পেরে খুশি মুসল্লিরা।

জামাতের ইমাম মাওলানা সামশুল হক কাশেমী জানান, এ পর্যন্ত ২৬টি ঈদের জামাতে ইমামতি করেছেন তিনি। তবে গোর-এ শহীদ বড় ময়দানে দেশের এবং এশিয়ার সর্ববৃহৎ ঈদুল ফিতরের জামাতে ২০১৭ সাল থেকে ইমামতি করে আসছেন। বিশাল এই জামাতে নামাজ আদায় করার মধ্যে মানসিক প্রশান্তিসহ ধর্মীয় ফজিলত রয়েছে। মোনাজাতে দেশ ও মুসল্লিম উম্মাহর শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করা হয়।

নামাজ শেষে আয়োজক কমিটির প্রধান জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকী বলেন, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে নামাজ আদায় হওয়ায় আমরা সবার কাছে কৃতজ্ঞ।

স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে শুকরিয়া আদায় করে বলেন, ৫২ গম্বুজবিশিষ্ট নান্দনিক সৌন্দর্যমণ্ডিত গোর-এ শহীদ বড় ময়দানে কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মিনারের ঈদুল ফিতরের বিশাল জামাতে প্রায় ৩ লাখের অধিক মুসল্লি একসঙ্গে নামাজ আদায় করেন।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে প্রায় ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে দিনাজপুরের ঐতিহাসিক গোর-এ শহীদ বড় ময়দানে নির্মিত হয় দেশের বৃহত্তম দৃষ্টিনন্দন ৫২ গম্বুজের বিশাল ঈদগাহ মিনার। ২২ একর আয়তনের এই ময়দানে একসঙ্গে ৫ লক্ষাধিক মুসল্লি নামাজ আদায় করতে পারেন।

মূলত ৫২ গম্বুজের ঈদগাহে ২ প্রান্তের মিনার ৬০ ফুট এবং মাঝখানের ২টি মিনার ৫০ ফুট উচ্চতা। ইমাম দাঁড়ানোর স্থান মেহেরাবের গম্বুজের উচ্চতা ৪৭ ফিট। এর সঙ্গে রয়েছে ৪৯টি গম্বুজ। ৫১৬ ফুট দৈর্ঘের ৩২টি আর্চ নির্মাণ করা হয়েছে। পুরো মিনার সিরামিক ইটে নির্মিত এবং প্রতিটি গম্বুজ ও মিনারে নয়নাভিরাম লাইটিংয়ের ব্যবস্থা রয়েছে।

Print Friendly and PDF