চট্টগ্রাম, শনিবার, ২১ মে ২০২২ , ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সকালে নাশতায় কী খান গুগল সিইও, জানালেন নিজেই!

প্রকাশ: ১৪ এপ্রিল, ২০২২ ৭:১৩ : পূর্বাহ্ণ

গুগল এবং অ্যালফাবেটের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) সুন্দর পিচাই জানালেন প্রতিদিন সকালে কী নাশতা করেন তিনি। এছাড়া নিজেকে স্থির রাখতে কী করেন প্রতিদিন।

সম্প্রতি ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সুন্দর পিচাই জানিয়েছেন, তিনি প্রতিদিন ৬ থেকে ৭ ঘণ্টা ঘুমান। তারপরে তিনি সকাল ৬টা ৪৫ মিনিটে বা সাড়ে ৭টায় ঘুম থেকে ওঠেন।

গত ১৫ বছর ধরে শুধুমাত্র এক ধরণের ব্রেকফাস্ট তৈরি করেন সুন্দর পিচাই। সেটি হলো, ডিম, টোস্ট এবং গরম চা।

 

সকালের ব্রেকফাস্টের পর সুন্দর পিচাইয়ের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কাজ খবর পড়া।

সুন্দর পিচাই বলেন, অফিসে যাওয়ার আগে তার নাশতার সঙ্গে খবরের কাগজ পড়া চাই। নাশতায় অবশ্যই চা থাকতে হবে। চায়ের সঙ্গে আবার থাকতে হবে টোস্ট বিস্কুট। এটাই তার বেশি পছন্দ। নিরামিষভোজী হিসেবে এর পাশাপাশি শরীরে প্রোটিনের জোগান দিতে নাশতায় ডিম ভাজা তার পছন্দের খাবার। গত ১৫ বছর ধরে সকালের রুটিন এভাবে হালকা নাশতা আর খবরের কাগজ পড়েই মেনে চলছেন তিনি।

এছাড়া নিজেকে স্থির রাখতে বা শিথিল করার জন্য সুন্দর পিচাইয়ের কিছু কৌশল আপনার জন্যও কার্যকর হতে পারে। চলুন জেনে নেই সুন্দর পিচাইয়ের কৌশলগুলো-

সাক্ষাৎকারে সুন্দর পিচাই জানান, তিনি নিজেকে শান্ত করার জন্য নন স্লিপ ডিপ রেস্ট (NSDR) কৌশল অনুসরণ করেন। এর জন্য চোখ বন্ধ করে মাটিতে শুতে হবে। এরপরে শরীর এবং হাত ও পা শিথিল করতে হবে। তারপর যেকোনও একটি বিষয়ে মনোযোগ দিন। আপনি মনে মনে খোলা নীল আকাশ বা একটি অন্ধকার ঘরের কথা ভাবতে পারেন। এ সময় আপনার শ্বাস এবং শরীরের বিভিন্ন অংশে সংবেদনগুলির দিকে মনোযোগ দিন।

তবে  সুন্দর পিচাইয়ের এইসব করতে ভালো লাগে না। তিনি জানান, ‘মেডিটেশন করতে আমার খুব কষ্ট হয়,তাই আমি ইউটিউবে NSDR ভিডিও চালিয়ে আরাম করি’।

NSDR এর মাধ্যমে, গভীর বিশ্রাম মেলে, যা সাধারণত ঘুমিয়ে পাওয়া যায় না।

স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি স্কুল অফ মেডিসিনের ডা. হুবারম্যান ল্যাব জানান, এনএসডিআর কৌশলগুলি অনেককে আকর্ষণ করে যারা ধ্যান ইত্যাদিতে অভ্যস্ত নয়।

ড. হুবারম্যান বলেন, তিনিও দীর্ঘদিন ধরে এই কৌশল অনুসরণ করছেন। যাদের ঘুমের সমস্যায় পড়তে হয় তাদের জন্য এই কৌশলটি খুব শক্তিশালী প্রমাণিত হতে পারে।

তিনি আরও বলেন, এই কৌশলে ঘুম যেমন দ্রুত আসে, তেমনি মানসিক চাপও কমে।

তবে সুন্দর পিচাই বলেন, ধ্যানের চেয়ে ভালো হাঁটা। এটি তার জন্য খুব উপকারী প্রমাণিত হয়। হাঁটতে হাঁটতে তিনি অনেক ভালোভাবে চিন্তা করতে পারেন বলেও জানান।

Print Friendly and PDF