চট্টগ্রাম, শনিবার, ২১ মে ২০২২ , ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

‘ডিয়ার সুমি, মেনি মেনি শুভেচ্ছা’

প্রকাশ: ১১ এপ্রিল, ২০২২ ৬:৪৭ : পূর্বাহ্ণ

পরীক্ষার খাতায় হিজিবিজি লেখা বা আবোলতাবোল নতুন কিছু নয়। ‘একটু পাস করিয়ে দেবেন’ এমন অনুরোধের সঙ্গেও পরীক্ষকরা পরিচিত। তবে এবার মাধ্যমিকের ইংরেজি খাতায় পরীক্ষার্থীদের বাক্যগঠন ও শব্দের বিন্যাস দেখে শিউরে উঠছেন পরীক্ষকরা।

খাতায় কেউ লিখেছে, ‘ডিয়ার সুমি, ফাস্ট নো মেনি মেনি শুভেচ্ছা ও ভালবাসা।

দেন লকডাউন হোয়েন কাটালে?’ আবার কেউ লিছেছেন, ‘আই হোপ ইউ? হোপ ইউ আর ফাইন? আই ওয়ান্ট টু শেয়ার উইথ ইউ অ্যাবাউট…। ’

শুধু তাই নয়, পরীক্ষার্থীদের অনেকেই সাদা খাতা জমা দিয়েছে। কেউ কেউ হিজিবিজি লিখে খাতা ভরিয়েছে। তবে সব থেকে নজরে পড়ছে বিচিত্র এই ভাষা। যাকে শিক্ষকরা ‘হোয়াটসঅ্যাপ ল্যাঙ্গুয়েজ’ বলছেন। এক শিক্ষিকা বলছেন, হোয়াটসঅ্যাপে যেমন ইংরেজি-বাংলা মিশিয়ে জগাখিচুড়ি ভাষায় অনেকে লেখে, পরীক্ষার্থীদের একাংশ সেই ভাষাতেই উত্তর লিখেছে। সব অর্থহীন বাক্য।

পশ্চিমবঙ্গের মেদিনীপুরের বেশ কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটেছে।

শিক্ষকদের পর্যবেক্ষণ বলছে, করোনার কারণে একটা বড় অংশের ছাত্রছাত্রীর পড়াশোনার সঙ্গে দীর্ঘ সময় সম্পর্ক ছিল না। আর অনলাইন পড়াশোনার দৌলতে ছাত্রছাত্রীদের হাতে হাতে এখন স্মার্ট ফোন। পড়াশোনাও অনেকটা হোয়াটসঅ্যাপ নির্ভর হয়ে পড়েছে। তারই প্রতিফলন দেখা যাচ্ছে উত্তরপত্রে।

বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের প্রধান ইন্দ্রনীল আচার্যেরও বলেন, দীর্ঘ সময় স্কুল বন্ধ ছিল। পড়াশোনা নোট-নির্ভর হয়ে গিয়েছে। হোয়াটসঅ্যাপে নোট পেয়ে গিয়েছে শিক্ষার্থীরা। এতে ইংরেজিতে লেখার দক্ষতা, সাহস— দুটোই কমেছে।

সূত্র : আনন্দবাজার

Print Friendly and PDF