চট্টগ্রাম, মঙ্গলবার, ৪ অক্টোবর ২০২২ , ১৯শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মন্দিরে ইফতার করছেন যে গ্রামের মুসলিমরা

প্রকাশ: ৯ এপ্রিল, ২০২২ ৬:১১ : পূর্বাহ্ণ

মন্দিরে ইফতার করছেন যে গ্রামের মুসলিমরা

ভারতের গুজরাটের ছোট একটি গ্রাম হাদিওল। বানাসকাঁথার ভাদগাম তালুকের এই গ্রাম পর্যটকদের কাছে খুব একটা পরিচিত নয়। তবে অবশ্যই শান্তির আবাস এটি। কেননা এখানে হিন্দু-মুসলিম কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

গ্রামের হিন্দুরা তাদের মুসলিম ভাইদের সঙ্গে একত্রে মিলেমিশে বাস করছে। ওই গ্রামের ১৫ শতাংশ মানুষ মুসলিম। কিন্তু প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে কোনো শত্রুতা বা বিরূপ মনোভাব ছাড়াই বাস করে আসছে এই দুই সম্প্রদায়ের মানুষ।

তাই এবার যখন রমজান মাস শুরু হলো তখন কীভাবে দুই সম্প্রদায় এক সঙ্গে ইফতার করতে পারে, তা নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু হয়। ভারদাবীর মহারাজ মন্দিরের দলভাদা দেবস্থান ট্রাস্টের সেক্রেটারি রঞ্জিত হাদিওল বলেন, যখন হিন্দু-মুসলিম বিভেদ চরমে, তখনও আমাদের গ্রাম ঐক্য ও ধর্মীয় সহিষ্ণুতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিল।

তিনি বলেন, দশেরা, মহররম, দীপাবলি বা ঈদ যাইহোক না কেন, আমরা সম্মিলিত উত্সাহের সঙ্গে একসঙ্গে আমাদের উত্সবগুলো উদযাপন করি। গ্রামের বেশিরভাগ মুসলিম পরিবারের শেকড় পালানপুরের সাবেক শাসক নবাবদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট। মন্দির নির্মাণের জন্য জমি দান করেছিলেন ওই নবাবরা।

গ্রামের পঞ্চায়েত প্রধান ভূপতসিংহ হাদিওল ইফতার পার্টির আয়োজন করার এবং সন্ধ্যায় মন্দির চত্বরে সব মুসলিম ভাইদের ইফতারের আমন্ত্রণ জানানোর প্রস্তাব করেছিলেন। তার সেই প্রস্তাব পুরো গ্রাম সর্বসম্মতিক্রমে গ্রহণ করেছিল।

Print Friendly and PDF