চট্টগ্রাম, শনিবার, ২৮ মে ২০২২ , ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ছেলেকে বেঁধে চোখে মরিচের গুঁড়া ঘষে দিলেন মা

প্রকাশ: ৭ এপ্রিল, ২০২২ ৬:৩৮ : পূর্বাহ্ণ


ছেলে বখে গেলে কোন মায়েরই বা মাথা ঠিক থাকে। আর এমন বখাটে ছেলেকে পথে আনতে শাস্তি দিতেও হাত কাঁপে না মমতাময়ী মায়ের। তেমনই এক শাস্তির ঘটনা সামনে এলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কল্যাণে।

ঘটনা ভারতীয় রাজ্য তেলেঙ্গানার। সেখানকার এক মা তার ছেলেকে খুঁটিতে বেঁধে চোখে ঘষে দিলেন মরিচের গুঁড়া। কারণ ছেলেকে সোজা পথে আনা। ১৫ বছরের ওই কিশোর একে ঠিকমতো স্কুলে যায় না, উল্টো আসক্ত হয়ে পড়ে গাঁজার নেশায়। খবর ভারতীয় গণমাধ্যম দৈনিক স্টেটম্যানের।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, সোমবার তেলেঙ্গানার সূর্যপেট জেলার কোদাদে ঘটে যাওয়া এই ঘটনার ভিডিও এরইমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে।
ভিডিওতে দেখা গেছে, ওই মা তার কিশোর ছেলেকে একটি পিলারের সঙ্গে বেঁধে রেখেছেন। অন্য একজন নারী ছেলেটির হাত ধরে রেখেছেন আর মা তার ছেলের চোখে মরিচের গুঁড়া ঘষে দিচ্ছেন।

চোখে মরিচের গুঁড়া যেতেই জ্বালা-যন্ত্রণায় ছেলেটি তীব্র আর্তনাদ শুরু করে। সেই আর্তনাদ শুনে প্রতিবেশীরা ওই মাকে ছেলের চোখে পানি ঢালার অনুরোধ জানায়। তবুও মন গলেনি মায়ের।

ছেলে যখনই আর গাঁজা সেবন করবে না বলে প্রতিশ্রুতি দেয় তখনই মা তাকে খুলে দেন। ওই মা বুকের মানিককে এমন কঠিন শাস্তি দিয়েছেন কেবল তার বদ অভ্যাস দূর করতে। কারণ বারবার সতর্ক করার পরও ছেলেটি তার বদ অভ্যাস ত্যাগ করেনি।

ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই তা নিয়ে তর্ক বিতর্ক শুরু হয়। যদিও তেলেঙ্গানার গ্রামীণ এলাকায় চোখে মরিচের গুঁড়া ঘষে শাস্তি দেয়ার প্রথা নতুন নয়। তবে এই পদ্ধতি কার্যকর হবে কিনা তা নিয়ে মতবিরোধ শুরু হয়েছে নেটিজেনদের মধ্যে। অনেকেই বিষয়টি সমর্থন করছেন। আবার অনেকেই বলছেন এই শাস্তির কারণে হিতে বিপরীত হতে পারে।
এদিকে স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, সম্প্রতি বেশ কিছু তরুণ-তরুণী মাদকাসক্ত হয়ে পড়েছে এবং তারা অপরাধ ও অন্যান্য অসামাজিক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ছে।

পুলিশ যুবক ও শিক্ষার্থীদেরকে মাদকের শিকার না হওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছে। অভিভাবকদের তাদের সন্তানদের কার্যকলাপের উপর নজরদারি রাখতে এবং এই ধরনের অসামাজিক কার্যকলাপ বন্ধ করতে নির্দ্বিধায় পুলিশের কাছে যেতে বা পুলিশকে তথ্য দেয়ার অনুরোধ করেছে।

Print Friendly and PDF