দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে প্রথম টেস্ট ৩৩৩ রান এবং পরেরটি ইনিংস ও ২৫৪ রানে হারে বাংলাদেশ। পুরো সিরিজেই সমালোচিত হয়েছে মুশফিকের নেতৃত্ব।

শোনা যাচ্ছে তাকে সরিয়ে দেওয়ার গুঞ্জন। অধিনায়ক অবশ্য পুরো ব্যাপারটিই ছেড়ে দিয়েছেন বোর্ডের ওপর। দ্বিতীয় টেস্ট শেষে সংবাদ সম্মলনে এসে জানালেন, দলকে নেতৃত্ব দিয়ে যেতে চান তিনি।

“আমাকে সরানো হবে কি না এই সিদ্ধান্তের ভার বোর্ডের ওপর। তারাই আমাকে এই সম্মান, দেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার দায়িত্ব দিয়েছে। আমি সততার সঙ্গে আমার সেরা চেষ্টা করেছি। তারা যদি সন্তুষ্ট না হয় তাহলে সিদ্ধান্ত নিতে পারে।”

“যা ঘটেছে আমি প্রথম দিনের খেলা শেষে কথা বলতে এসে কেবল তারই বর্ণনা দিয়েছি। যদি কেউ আমার মন্তব্যে খুশি না হয় তাদের অধিকার আছে আমার বা দলের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়ার।”

ব্লুমফন্টেইন টেস্টের প্রথম দিনের খেলা শেষে এক প্রশ্নের জবাবে অধিনায়ক বলেছিলেন, কোচদের চাওয়ায় সীমানায় ফিল্ডিং দিতে হয় তাকে। তার বক্তব্যে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান।

নেতৃত্ব নিয়ে সিদ্ধান্ত বোর্ডের ওপর ছাড়লেন মুশফিক